President

২০০৯ সালে হয়েছিল ভয়াবহ জঙ্গি হামলা ৷ সেই হামলার স্মৃতি নিয়েই লাহোরে এসেছে লঙ্কা ক্রিকেট দল ৷ পাক সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, প্রেসিডেন্টের জন্য যে ধরণের নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয় ঠিক তেমনই নিরাপত্তার ঘেরাটোপে আছেন লঙ্কার ক্রিকেটাররা ৷

এবার আর কোনও নিরাপত্তার ফাঁক নয়৷ আরও কড়া নজর৷ মধ্যরাতে লাহোরের আল্লামা ইকবাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছায় শ্রীলঙ্কা দল ৷ সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের ঘিরে নেয় পাক কমান্ডোরা ৷ বিস্ফোরক রোধক বাসে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট দলকে হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়৷ এমনই জানাচ্ছে পাক সংবাদ মাধ্যম ৷

২০০৯ সালের ৩ মার্চের ঘটনা৷ লাহোরের গদ্দাফি স্টেডিয়ামের বাইরে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের জন্য নির্দিষ্ট বাসে ১২ জন জঙ্গি হামলা চালায়৷ সেই হামলায় শ্রীলঙ্কা জাতীয় ক্রিকেট দলের ছয় সদস্য জখম হয়েছিলেন৷ জঙ্গিদের গুলিতে ছয় পাক পাঞ্জাব পুলিশের রক্ষী ও দুজন সাধারণ নাগরিকের মৃত্যু হয় ৷ এই হামলায় জড়ি লস্কর ই জাংভি জঙ্গি সংগঠন ৷

শ্রীলঙ্কার টিম বাসে হামলার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে প্রবল সমালোচিত হয় পাকিস্তান সরকার৷ নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে পাকিস্তানে কোনও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট পরিচালনা বাতিল করে আইসিসি ৷ পরিবর্তে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর দুবাইতে অনুষ্ঠিত হত বিভিন্ন ম্যাচ ৷ এদিকে ঘরের মাঠে আন্তর্জাতিক ম্যাচ না পেয়ে পাক ক্রিকেট বোর্ড আর্থিক ধাক্কার মুখোমুখি হয়েছিল৷

সম্প্রতি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে ৷ এরপরে শ্রীলংকার দল ফের লাহোরে খেলতে এল৷ বিবিসি জানাচ্ছে, লঙ্কা ক্রিকেট দলের কয়েকজন খেলোয়াড় পাকিস্তান সফর থেকে নিজেদের বিরত রেখেছেন।

২৯ অক্টোবর, ২০১৭ ১৫:১৫ পি.এম