President

বিনোদন পার্ক তৈরির জন্য একশো দিনের কাজ চলাকালীন মাটি খোঁড়ার সময় মাটির তলা থেকে বেরিয়ে পড়লো আস্ত দুটি প্রাচীন মন্দির। পূর্ব বর্ধমান জেলার গলসি থানার ভুরি গ্রাম পঞ্চায়েতের জুজুটি নদী বাঁধের কাছে মাটির নিচে চাপা পরে থাকা এই মন্দির দুটির চূড়া মাটি খোঁড়ার সময় দেখতে পায় শ্রমিকরা।মাটির তলা থেকে মন্দির আবিষ্কারের খবর চাউর হতেই এলাকায় ভিড় করতে থাকে আশপাশের কৌতুহলী গ্রামবাসীরা। স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান সুবোধ ঘোষ জানিয়েছেন, মন্দির আবিষ্কারের বিষয়ে ইতিমধ্যেই বিডিও শঙ্খ বন্দোপাধ্যায়কে জানানো হয়েছে। পাশাপাশি প্রত্নতত্ত্ববিদদের এলাকায় এসে সমগ্র বিষয়টি খতিয়ে দেখার আবেদন জানানো হচ্ছে।


সুবোধ বাবু জানান,এই এলাকায় প্রতি বছর বহু মানুষ পিকনিক করতে আসেন। তাই এই জায়গাটিকে ভ্রমণের উপযুক্ত করে তোলার জন্য গত ৮ নভেম্বর থেকে ভূড়ি পঞ্চায়েতের অধীনে জুজুটি গ্রামের শশ্মান ঘাট সংলগ্ন এলাকায় একটি বিনোদন পার্ক তৈরী করার কাজ শুরু করা হয়েছে। প্রায় ১২০০ শ্রমিক এই কাজে নিযুক্ত হয়েছে। ৯ নভেম্বর ৪ ফুট মাটি কাটার পর তাঁরা দেখতে পায় একটি মন্দিরের চূড়া। কিছুটা দূরে আরো একটি মন্দিরের মাথা দেখা যায়। খবর পেয়ে ওই এলাকায় গিয়ে বিষয়টি দেখার পর কর্মীদের খনন কার্যের ব্যাপারে সাবধানতা অবলম্বন করতে বলা হয়। এরপর ধীরে ধীরে মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে আসে প্রায় আস্ত দুটি মন্দিরের অংশ। উপর থেকে দেখে আপাতত এই মন্দিরগুলিকে শিব মন্দির বলেই মনে করা হচ্ছে। সুবোধ বাবু জানান,এই মন্দির দুটি সম্ভবত ২০০ থেকে ২৫০ বছরের প্রাচীন।হতে পারে ইংরেজ আমলে কোনো কারণে মাটির নিচে চাপা পরে গিয়েছিলো এগুলি । একসময় দামোদর নদ এই স্থানের অনেক কাছে ছিল। এখানে একটি খেয়াঘাট ছিল বলেও শুনতে পাওয়া যায় বলে সুবোধ বাবু জানিয়েছেন।


তিনি বলেন ইংরেজ আমলে এখানে একটি লাইট হাউস (ওয়াচ টাওয়ার ) ছিল। মূলত আশপাশের গ্রামের মানুষকে ফি বছর বন্যায় আগাম সতর্ক করার জন্যই এই ব্যবস্থা ছিল বলে জানা যায়। বর্তমানে মানুষের চলাচলের যে পথ তার থেকে এই জায়গাটির উচ্চতা ছিল অনেক বেশি।তাই ১০০দিনের কাজে শ্রমিকরা মাটি কেটে সমান্তরাল করছিলেন।
সুবোধ বাবু জানিয়েছেন, এতো প্রাচীন দুটি মন্দির এই এলাকায় আবিষ্কার হওয়ায় এই এলাকাটি ভবিষ্যতে দর্শকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হতে পারে। তাই মন্দির দুটির যথাযথ সংরক্ষণের জন্য প্রশাসনের কাছে আবেদন জানানো হবে।স্বাভাবিকভাবেই বিনোদন পার্ক এর পাশাপাশি প্রাচীন এই প্রত্ন নিদর্শন আগামী দিনে মানুষকে এই স্থানে আস্তে উৎসাহিত করবে।

২৫ অক্টোবর, ২০১৭ ১৭:০১ পি.এম