President

বছরের পর বছর পাকিস্তান মার্কিন ‌যুক্তরাষ্ট্রের বন্ধুত্বের ফয়দা তুলেছে। ইসলামাবাদকে এভাবেই নিশানা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে এখন ইসলামাবাদ বন্ধুত্বের ম‌র্যাদা দিতে শুরু করেছে বলেও মন্তব্য করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পরই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তোপ দাগতে শুরু করেন ট্রাম্প। বছরের পর বছর মার্কিন অনুদান পেলেও সন্ত্রাসদমনের কোনও কাজই পাকিস্তান করেনি বলে অভিষোগ করেন তিনি। দাবি করেন, পাকিস্তানের মাটিতে জঙ্গি নেটওয়ার্ক ভাঙতে হবে। তা না করলে ভবিষ্যতে সবধরনের সাহ‌া‌য্য বন্ধ করে দেওয়া হবেও স্পষ্ট করে দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। পাশাপাশি আফগানিস্থানে জঙ্গি ডেরায় বোমা ফেলে বুঝিয়ে দেওয়া হয়, জঙ্গিদের বিরুদ্ধে পাকিস্তান ব্যবস্থা না নিলে সেই কাজ ওয়াশিংটনই করবে।

সম্প্রতি এক মার্কিন নাগরিক মহিলা, তাঁর স্বামী ও তাঁদের তিন সন্তানকে হাক্কানি জঙ্গিদের কব্জা থেকে মুক্ত করেছে পাকিস্তান। টানা ৫ বছর ওই পরিবারটিকে আটকে রেখেছিল জঙ্গিরা। এনিয়ে বেশ খুশ ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, বহুদিন ধরে পাকিস্তান মার্কিন বন্ধুত্বের ফয়দা তুলেছে একথা আমি বহু বার বলেছি। তবে এবার আমরা নতুন করে ‌যাত্রা শুরু করেছি। দেশ হিসেবে মার্কিন ‌যুক্তরাষ্ট্রকে সম্মান জানাতেই হবে ইসলামাবাদকে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার মার্কিন নাগরিক ক্যাইথান কোলম্যান ও তাঁর কানাডিয়ান স্বামী জেসুয়া বয়েল ও তাঁদের ৩ সন্তানকে হাক্কানি জঙ্গিদের হাত থেকে উদ্ধার করে পাক সেনা। পাকিস্তানের এই উদ্যোগকে প্রশংসা করেছে মার্কিন প্রশাসন।

১৪ অক্টোবর, ২০১৭ ১৮:১২ পি.এম