President

সুফতা: জম্মু-কাশ্মীরের সবচেয়ে প্রিয় এবং ঐতিহ্যশালী এই মিষ্টি তৈরি হয় ড্রাই ফ্রুটস দিয়ে। দীপাবলির উৎসবে তাই জম্মু-কাশ্মীরের হিট লিস্টে রয়েছে সুফতাই।

মাইসোর পাক: দক্ষিণ ভারতের ঐতিহ্য মাইসোর পাক। ময়দা, ঘি এবং চিনির পাকে তৈরি এই মিষ্টি একসময় মাইসোর প্যালেসে বহু প্রচলিত ছিল। পরে প্যালেসের রান্নাঘর থেকে এই মিষ্টি জায়গা করে নিয়েছে সাধারণের হেঁসেলে।

খাজা: ময়দা, চিনি এবং ঘি-য়ে তৈরি এই ভাজা দীপাবলির সেরা আকর্ষণ। বাংলায় এই মিষ্টির তেমন কৌলীন্য না থাকলেও, বিহার এবং উত্তরপ্রদেশের যে কোনও উৎসবে মুচমুচে, খাস্তা এই মিষ্টির চাহিদাই আলাদা।

শিরাখণ্ড এবং বাসুন্দি: বাঙালিদের পায়েসের বিকল্প মারাঠিদের বাসুন্দি। দুধ, ক্ষীর এবং চিনি সমৃদ্ধ ঠান্ডা ঠান্ডা বাসুন্দি জিভে জল এনে দেবেই। তালিকায় রয়েছে দুধ এবং ক্ষীরে মজানো শিরাখণ্ডও।

জিলাপি: হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরপ্রদেশের সেরা আকর্ষণ জিলাপি। বিয়ে হোক বা দীপাবলি যে কোনও উৎসবেই ডেসার্ট বলতে মুচমুচে রসে ভরা জিলাপির কোনও জুড়ি নেই।

বল মিঠাই এবং সিঙ্ঘোরি: দীপাবলিতে উত্তরাখণ্ডের বাজার মাতাবে মুচমুচে এবং সুস্বাদু বল মিঠাই। তবে উত্তরাখণ্ডের ঐতিহ্যের মধ্যে পড়ে মেওয়া এবং চিনির পাকে তৈরি সিঙ্ঘোরি মিঠাই। আলোর উৎসবে হিট লিস্টে রয়েছে দু’টোই।

  কাজু কাটলি: দীপাবলিতে উত্তর ভারতে সেরা আকর্ষণ কাজু কাটলি বা কাজু বরফি। ঘি, কাজু বাটা, চিনি এবং মেওয়া (খোয়া ক্ষীর) পাক দিয়ে তৈরি এই মিষ্টি শুধু উত্তর ভারত নয় গোটা দেশের মিষ্টিবিলাসীদের মন জয় করেছে।

রসগোল্লা: বাঙালির আবেগ ও ঐতিহ্যের অনেকটা জায়গা জুড়ে রয়েছে রসগোল্লা। রসগোল্লা ছাড়া উৎসব কল্পনাই করা যায় না। আনন্দের উৎসবকে আরও আনন্দমুখর করে তুলতে, স্বাদে ও গন্ধে ভরিয়ে তুলতে রসগোল্লার জুড়ি মেলা ভার। তাই দীপাবলির মরসুমে গোটা বাঙলা জুড়ে প্রথম তালিকায় রয়েছে রসগোল্লা।

 

 

 

১০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৫:৩৬ পি.এম