President

রমজান মাসে অনেকেরই গ্যাসের সমস্যা দেখা দেয়। যাদের এই গ্যাসের সমস্যা আছে বা গ্যাস্ট্রিক হয়ে গেছে, তারা এ সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে জেনে নিন দারুণ কিছু সমাধান। সম্পূর্ণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন এ সমাধানগুলো দূর করবে সাধারণ গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা।

লবঙ্গ : গ্যাস্ট্রিকের তাৎক্ষণিক সমাধান করবে লবঙ্গ। ইফতারির পর  দু’টি লবঙ্গ মুখে নিয়ে চিবোতে থাকুন। চুষে রসটা খেয়ে ফেলুন। দেখবেন কিছুক্ষণের মধ্যেই দূর হয়ে গেছে অ্যাসিডিটি।

পুদিনা পাতা : গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর করতে সেই প্রাচীনকাল থেকেই পুদিনা পাতার রস ব্যবহার হয়ে আসছে। প্রতিদিন ইফতারিতে পুদিনা পাতার রস বা পাতা চিবিয়ে খেলে অ্যাসিডিটি ও গ্যাস্ট্রিক থেকে মুক্তি পাবেন।

আদা : বুক জ্বালাপোড়া এবং অ্যাসিডিটি সমস্যা সমাধানে বেশ কার্যকর আদা। রমজান মাসে প্রতিদিন রাতের খাবার খাওয়ার আধঘণ্টা আগে ছোট এক টুকরো আদা কাঁচা চিবিয়ে খান  দেখবেন গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা একেবারেই থাকবে না।

তুলসী পাতা : ঔষধি গুণে ভরা তুলসী পাতার কথা কে না জানেন। অ্যাসিডিটি দূর করতেও এটি বেশ কার্যকর। গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা শুরু হলে ৫-৬টি তুলসী পাতা চিবিয়ে খেয়ে দেখুন ভালো ফল পাবেন। এছাড়া প্রতিদিন তুলসী পাতা পানির সঙ্গে ব্লেন্ড করে খেলে একেবারে দূর হবে গ্যাস্ট্রিক ও অ্যাসিডিটির সমস্যা।

গুড় : আপনার বুক জ্বালাপোড়া এবং অ্যাসিডিটি থেকে তাৎক্ষণিকভাবে রেহাই দিতে পারে গুড়। যদি বুক বেশি জ্বালাপোড়া করে একটুকরো গুড় মুখে নিয়ে রাখুন। যতোক্ষণ না সম্পূর্ণ গলে যায় ততোক্ষণ মুখে রেখে দিন। তবে এ সমাধান অবশ্যই ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য নয়।

বোরহানি : বদহজম থেকে রক্ষা করে বোরহানি। এ পনীয়টি টক দই, বীট লবণ ইত্যাদি অ্যাসিডিটি বিরোধী উপাদান দিয়ে তৈরি। প্রতিদিন খাবারের পর একগ্লাস বোরহানি পানের অভ্যাস করতে পারলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা অনেকাংশে দূর হবে।

বেকিং সোডা : পেটের অ্যাসিডের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে তাৎক্ষণিক রেহাই পেতে সাহায্য করে বেকিং সোডা। ১ গ্লাস পানিতে ১-৪ চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে পান করুন। ভালো ফলাফল পাবেন।

 

টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪ ডটকম/এস আর/এ আর/আইএস/ ১১ জুন ২০১৭

১১ জুন, ২০১৭ ১০:৪৩ এ.ম